Daily Frontier News
Daily Frontier News

গলাচিপায় নৌপথ রক্ষা ও ঢাকা রুটে লঞ্চ চলাচল চালু রাখার দাবিতে মানববন্ধন।

 

 

শ্রী ঃ মিশুক চন্দ্র ভুঁইয়া, পটুয়াখালী জেলা প্রতিনিধি।

 

পটুয়াখালীর লোহালিয়া সেতু নির্মাণে ঢাকা থেকে গলাচিপা নৌরুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ হওয়ার প্রতিবাদে এবং গলাচিপা বন্দরের নৌপথ রক্ষা ও লঞ্চ চলাচল সচল রাখার দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে নৌপথে চলাচলকারী যাত্রী,ব্যবসায়ী ও ঘাট শ্রমিকরা। রোববার (১৩ নভেম্বর) সকাল ১১ টায় উপজেলা সদর রোড ও লঞ্চ ঘাটে ঘন্টাব্যাপী এ কর্মসূচি পালন করা হয়। পরে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বনিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক তাপস দত্ত, ঘাট শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো. ফারুক দফাদার, ঘাট ইজারাদার ও উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি মো. ইব্রাহিম দফাদার, সাধারণ সম্পাদক মো. আল আমিন হোসেন, লঞ্চ মালিক সমিতির পক্ষে মো. মজিবুর রহমান, লঞ্চ যাত্রীদের পক্ষে রেদওয়ান তালাল ও ব্যবসায়ী শাহাদাত হোসেন সোহাগ। এসময় বক্তারা বলেন, লোহালিয়া সেতু নির্মাণ কাজের কারণে হটাৎ করে গলাচিপা নৌরুটে লঞ্চ চলাচল বন্ধ হওয়ায় ব্যবসায়ী ও যাত্রীরা ব্যাপক ক্ষতি ও ভোগান্তিতে পড়েছে। ঢাকা রুটের নদীপথ বন্ধ থাকায় রোগী, বৃদ্ধ, নারী ও শিশুদের এখন পটুয়াখালী থেকে যাতায়াতে খরচ ও ভোগান্তি বেড়েছে। ব্যবসায়ীদের মালামাল পরিবহন খরচ বেড়ে গেছে। এছাড়া লঞ্চ বন্ধ হওয়ায় ঘাট শ্রমিকদের আয় উপার্জন বন্ধ হয়ে পরিবার নিয়ে না খেয়ে দিন কাটাচ্ছে। কৃষককের উৎপন্ন ধানসহ বিভিন্ন পণ্য পরিবহনের অতিরিক্ত ভাড়া গুনতে হচ্ছে। বক্তারা আরো বলেন, লোহালিয়া সেতুর উচ্চতা ৪৫ ফুট করা হয়েছে যা BIWTA এর নির্ধারিত স্ট্যান্ডার্ড মেনে হচ্ছে না। গলাচিপা রুটে ৫০ থেকে ৫৫ ফুট উচ্চতার নৌযান চলাচল করে ব্রিজ ৪৫ ফুট উচ্চতায় নির্মাণ করলে এই রুটে বেশি উচ্চতার নৌযান চলাচল করতে পারবেনা। এছাড়া নদীর প্রবাহ ঠিক রাখতে বিকল্প উপায়ে লঞ্চ চলাচল চালু রাখার দাবি করেন বক্তারা। এসময় মানববন্ধন থেকে সেতু সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট ৬টি দাবি তুলে ধরা হয়। দাবিগুলো হলো- মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী নদী, নৌপথ বাঁচিয়ে যথাযথ ভাবে ব্রীজ নির্মান করতে হবে। লোহালিয়া ব্রীজ নির্মান বন্ধ করে BIWTA এর স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী করতে হবে। লোহালিয়া ব্রীজ নির্মানে নদীর প্রবাহ বন্ধ করা যাবেনা। লোয়ালিয়া ব্রীজ পায়রা বন্দর এবং গলাচিপা বন্দর কে পঙ্গু করে দেয় তাই এই নদীপথ বাচাঁতে হবে। ৪৫ ফুট উচ্চতার এই ব্রীজ দিয়ে, ৫০ ফুট উচ্চতার উচু নৌযান চলাচল করতে পারবে না, মিনিমাম ৬০ ফুট উচু করতে হবে এই ব্রীজ এবং নদী বাঁচিয়ে উন্নয়ন দাবি করেন। মানববন্ধন কর্মসূচিতে নদীপথে চলাচলকারী যাত্রী, বনিক সমিতি, গলাচিপা ও রাঙ্গাবালী উপজেলার ব্যবসায়ী এবং গলাচিপা ফাউন্ডেশনের ও নাগরিক সমাজের প্রায় চারশত লোক অংশগ্রহণ করে। উল্লেখ গত ২ নভেম্বর থেকে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত ৩ মাসের জন্য সেতু নির্মাণের কারণে ঢাকা – পটুয়াখালী – গলাচিপা নৌরুটে সকল ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। তিন মাস পর এই রুটে নৌযান চলাচল স্বাভাবিক হবে।

Daily Frontier News