Daily Frontier News
Daily Frontier News

রেমাল ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডবে বিধ্বস্ত ভারতের দক্ষিণ পূর্ব অঞ্চল

ভারত থেকে নিউজ দাতা মনোয়ার ইমাম।

গতকাল রাত দশটা থেকে আজ বৈকাল চারটে পযন্ত ভয়াবহ রেমাল ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডবে বিদ্ধস্ত হয়েছে গোটা ভারতের দক্ষিণ পূর্ব অঞ্চলের বঙ্গোপসাগরে র উপকূল বরাবর এলাকায়। ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডবে গতি এতটাই বেশি ছিল যে টালি র চালের ছাউনি সহ পাকা অ্যাসবেস্টস চাল পযন্ত উড়িয়ে নিয়ে গেছে। কোথাও কোথাও বাড়ির ছাদে র ছাউনি সহ গোটা চাল চুলোর বাঁশ সহ উড়িয়ে নিয়ে যায়। সাথে সাথে প্রবল ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে প্লাবিত হয়ে গেছে বিভিন্ন যায়গায়। সবথেকে বেশি ক্ষতি হয়েছে দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলা ও উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলা এবং পূর্ব মেদিনীপুর জেলা ও হাওড়া এবং হুগলি নদীর তীর বরাবর এলাকায়। গভীর সুন্দর বন এলাকায় বহু নদীর বাঁধ ভেঙে প্লাবিত হয়েছে গোটা এলাকা। সবুজ ফসলের ক্ষতি সবচেয়ে বেশি হয়েছে। ক্ষতির পরিমাণ কয়েক হাজার কোটি টাকা। ভারত সরকারের পক্ষ থেকে সবধরনের সহায়তা করবেন বলে জানান ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই সঙ্গে পশ্চিম বাংলা র মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তিনি তার প্রশাসনিক কর্মকর্তারা রেমাল ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডবে কবলে পড়া মানুষের পাশে থাকতে বলেন। এবং এই ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের সবধরনের সহায়তা করবেন বলে জানিয়েছেন। তৃনমূল দলের পক্ষ থেকে প্রতিটি জেলা ও ব্লক নেতৃত্ব বলা হয়েছে যে তারা যেন ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ায়। পশ্চিম বাংলা র নবান্ন থেকে প্রতিটি মুহুর্তের খবর নিয়েছেন পশ্চিম বাংলা র মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডবে কবলে পড়া মানুষের যাতে ত্রিপল ও ত্রাণ বিতরণ করা হয় তার নির্দেশ দিয়েছেন পশ্চিম বাংলা র মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রতিটি বিধায়ক ও ব্লক উন্নয়ন বোর্ড এর সভাপতি ও তৃনমূল দলের নেতৃত্ব যেন ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের সবধরনের সহায়তা করেন এমন নিদের্শ দিয়েছেন পশ্চিম বাংলা র মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলার ডায়মন্ডহারবার জেলা পুলিশ সুপার শ্রী রাহুল গোস্বামী আই পি এস এবং বারুইপুর জেলা পুলিশ সুপার শ্রী পলাশ চন্দ্র ঢালী আই পি এস এবং সুন্দর জেলা পুলিশ সুপার বঙ্গোপসাগরে পতিত ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। তারা আগাম সতর্কবার্তা দিয়েছিলেন। সেই সঙ্গে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের উদ্ধার কাজে হাত লাগিয়েছেন। সাগর ও নামখানা পাথরপ্রতিমা কাকদ্বীপ ডায়মন্ডহারবার সহ গোসবা মোল্লা খালি এবং বাসন্তী এবং ক্যানিং সহ বিভিন্ন যায়গায় ছুটে বেড়িয়ে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে লোকাল প্রশাসনিক কর্মকর্তারা। দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলার অন্তর্গত মগরাহাট পশ্চিমের ব্লক উন্নয়ন বোর্ড এর চেয়ারম্যান শ্রী সব্যসাচী গায়েন ও ভাইহ চেয়ারম্যান হাজি মোবারক আলী ও উস্তি ব্লক উন্নয়ন বোর্ড এর আধিকারিক ও কালেক্টর জনাব আশিক ইকবাল সেখ এবং ডায়মন্ডহারবার জেলা পুলিশ সুপার শ্রী রাহুল গোস্বামী সহ তার প্রতিটি থানার অধীনস্থ অফিসাররা ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। মগরাহাট পশ্চিমের ব্লক উন্নয়ন বোর্ড এর উত্তর কুসুম গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মাসকিনা মমতাজ বেগম ও তার সহয়ক জামশিদুল ইসলাম গতকাল থেকে সাধারণ মানুষের সেবা প্রদান করতে পঞ্চায়েতের ক্যাম্প খুলে রেখেছে। সাথে খাদ্যের ব্যাবস্থা করা হয়েছে বলে জানা গেছে।।

Daily Frontier News