Daily Frontier News
Daily Frontier News

স্বামীর আত্মহত্যার মামলায় দ্বিতীয় স্ত্রী গ্রেফতার

 

আব্দুল জাহির মিয়া চুনারুঘাট:

 

চুনারুঘাটে স্বামীর আত্মহত্যা প্ররোচনায় প্রথম স্ত্রীর দায়ের করা মামলায় দ্বিতীয় স্ত্রী আমিনা খাতুন (৪০) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (৪মে) দুপুরে আমিনাকে আদালতে সোপর্দ করলে আদালত আমিনার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। এর আগে বুধবার রাতে আত্মহত্যার প্ররোচনার ঘটনায় প্রথম স্ত্রী লাইজু আক্তার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়ের পর বুধবার দিবাগত রাতে উপজেলার গোগাউড়া নিজ বাড়ি থেকে আমিনাকে গ্রেফতার করা হয়। আমিনা খাতুন উপজেলার উত্তর গোগাউড়া গ্রামের আ:ছালামের কন্যা। গত ৩ মে সকালে চুনারুঘাট উপজেলার সদর ইউনিয়নের উত্তর গোগাউড়া দ্বিতীয় স্ত্রীর বাড়ি থেকে ইউসুফ আলীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। গত ২ মে তিনি দ্বিতীয় স্ত্রীর বাড়িতে আসেন । শশুর বাড়ি এসে দ্বিতীয় স্ত্রী আমিনা খাতুনকে বাড়ি ফিরিয়ে নিতে ব্যর্থ হয়। ইউসুফ। জানিতে পারে।

স্ত্রী আমিনা খাতুন ইউসুফকে তালাক দেয় এবং ইউসুফ আলীকে তুই বিষ খাইয়া মর, তুই ফাঁসি লাগাইয়া মর এবং তোর মত স্বামী আমার প্রয়োজন নাই বলে ধিক্কার দিতে থাকে। এ ঘটনায় হতাশাগ্রস্ত হয়ে রাতেই কোন একসময় শ্বশুবাড়ির পেছনে বিষপান করে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে । এসব তথ্য নিশ্চত করে চুনারুঘাট থানার ওসি রাশেদুল হক দৈনিক সমকালকে বলেন, আমরা আসামি আমিনাকে গ্রেফতার করেছি। ইউসুফ আত্মহত্যা করেছে নাকি হত্যাকান্ড ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে জানা যাবে বলে জানান তিনি। ১ম স্ত্রী লাইজু আক্তার জানায়, আমিনা আমার স্বামীর বন্ধু বাচ্চু মিয়ার স্ত্রী আমার বাড়িতে আসা যাওয়ার সুবাদে স্বামীর সাথে পরকীয়া করে আমাকে বাড়ি ছাড়া করে আমার সন্তানদের এতিম করেছে আমিনা । আমি এ হত্যার বিচার চাই। নিহত ইউসুফ আলীর বোন রাজিয়া খাতুন বলেন, আমার ভাইকে আমিনা খাতুন ও তার লোকজন বাড়িতে ডেকে নিয়ে হত্যা করে আত্নহত্যার নাটক সাজিয়েছে। আমি আমার ভাই হত্যার সঠিক বিচার চাই।

Daily Frontier News