Daily Frontier News
Daily Frontier News

নরসিংদীতে সংখ্যালঘু পরিবারকে যৌন হয়রানীর অভিযোগে থানায় মামলা জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সাংবাদ সম্মেলন

 

স্টাফ রিপোর্টার ঃ

 

স্বাধীন দাস পিতা কানাই দাস সাং বৌয়াকুড় নরসিংদী । নরসিংদী মডেল থানায় হাজির হয়ে এজাহার দায়ের করেন এজাহারে প্রকাশ
এই যে, আমি স্বাধিন দাস (২০), এনআইডি নং-৪৬৬২৮২০১৩৫ পিতা
দাস, সাং-২০৮/৩ বৌয়াকুড়, থানা ও জেলা- নরসিংদী। আপনার থানায় হাজির হয়ে বিবাদী ১। সিদ্দিকুর
রহমান নাহিদ পিতা-মৃত্যু তোফাজ্জল,(২) সানি পিতা জহিরুল উভয় সাং নাগরিয়াকান্দি, (৩)
দোলন (২৪), পিতা-রমজান আলী, সাং-পশ্চিম ব্রাহ্মন্দী, ৪। দিপু (৩২), পিতা- অনাত, সাং নাগরিয়াকান্দি
দর্শ মানা ও জেলা-নরসিংদী সহ আরো অজ্ঞাতনামা ৫/৬ জনদের বিরুদ্ধে এই মর্মে অভিযোগ করে
ইং-১৫/২/২০২৩ তারিখ বিকাল অনুমান ॥৩০ ঘটিকার সময় আমার আপন ছোট ভাই পাপন পাল (১৮)
আমার ছোট চার বোন রুনু (১৬), ঝুমু (১৬), কথা (১৫) এবং নন্দীনি (১২) গণদের নিয়ে ঘোরাফেরা করার
জন্য বাসা থেকে বাহির হয়ে অটো মিশুক যোগে নরসিংদী থানাধীন নাগরিয়াকান্দি ব্রীজের পশ্চিম পাশে নিচে
নদীর পাড়ে যায়। ব্রীজের নিচে নদীর পাড়ে আমার ভাই-বোনেরা হাটতে থাকে এবং মোবাইলে কিছু ছবি
উঠাইতে থাকে। তখন বিকাল অনুমান ০৬.০০ ঘটিকার সময় বর্ণিত ২ ও ৩নং বিবাদীদ্বয় সহ অজ্ঞাতনামা
আরো ০২ জন বিবাদী উক্ত স্থানে আসিয়া আমার ভাই-বোনদের নানা ধরনের আজেবাজে কথাবার্তা বলিয়া
বিরক্ত করিতে থাকে। এমনকি তাহারা আমার ছোট বোন কথা (১৫) ও ঝুমু (১৬) দ্বারের হাত ধরে টানাটানি
না করা সহ অশ্লিল অঙ্গভঙ্গি প্রদর্শন করিয়া তাদের শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিতে থাকে। তখন
আমার ভাই পাপন দাস বিবাদীদেরকে তাহাদের এহেন কার্যকলাপ করা থেকে বিরত থাকার জন্য বলিলে
বিবাদীরা ক্ষীপ্ত হয়ে আমার ভাই পাপন দাসকে গালিগালাজ করিয়া এলোপাথারী ভাবে মারধর করে নীলাকুপা
জখম করে। পরবর্তীতে ১নং বিবাদী সহ ৪নং বিবাদী এবং তাহাদের সঙ্গীয় অজ্ঞাতনামা আরো ৫/৬ জন
বিবাদী একজোট হয়ে আমার ভাই পাপন দাসকে পুনরায় এলোপাথারী ভাবে লোহার পাইপ, রড, বেল্ট দিয়া
হন বাইড়াইয়া আমার ভাইয়ের শরীরের বিভিন্ন স্থানে নীলাফুলা জখম করে। ২নং বিবাদী সানি লোহার পাইপ দিয়া
হত্যার উদ্দেশ্যে আমার ভাই পাপনের মাথায় স্বজোরে বারি মারিয়া মাথার ডান পাশে গুরুতর কাটা রক্তাক্ত
জখম করে। ৩নং বিবাদী দোলন লোহার রড দিয়া আমার ভাইয়ের বাম হাতের কনুইয়ের নিচে স্বজোরে বারি
মারিয়া হাড় ভাঙ্গা গুরুতর জখম করে। ঐ সময়ে আমারা ডাক-চিৎকার করিলেও বিবাদীদের ভয়ে কেউ
আগাইয়া যাওয়ার কিংবা কিছু বলার সাহস পায় নাই। অতঃপর আমার বোনেরা আমার ভাইকে বাঁচানোর চেষ্টা
নামকরিলে বিবাদীরা আমার বোনদেরকেও মারধর করে নীলাফুলা জখম করত: তাহাদের টানা হেদুরা করিয়া
T পাশের নির্জন স্থানে নেওয়ার চেষ্টা করে। ৪নং বিবাদী আমার বোনদেরকে ভয় দেখাইয়া বা কিছু আছে দিয়ে
দেওয়ার জন্য বলে। ৪নং বিবাদীর এহেন হুমকীতে আমার বোনেরা ভীত হয়ে পড়িলে ২নং বিবাদী আমার বোন
বোন কথা (১৫) এর গলায় থাকা ০৭ আনা ওজনের একটি স্বর্ণের চেইন, মূল্য অনুমান ৪০,০০০/ টাকা এবং
তনং বিবাদী আমার বোন ঝুমু (১৫) এর গলায় থাকা ০৮ আনা ওজনের একটি স্বর্ণের চেইন মূল্য অনুমান
৪৫.০০০/টাকা নিয়া যায়। এরপর বিবাদীদের সাথে থাকা অজ্ঞাতনামা ০১ জন বিবাদী আমার ছোট বোন কথা
: ভূঁইয়া)
৩৫৮৯৫) এর ব্যবহৃত একটি ইনফিনিক্স মোবাইল সেট নিয়া ভাংগিয়া ফেলে যাহাতে প্রায় ১১,০০০/টাকার
নরসিল সাধন হয় এবং অপর ০১ জন অজ্ঞাতনামা বিবাদী আমার ভাই পাপন দাস এর ব্যবহৃত ওয়ান প্লাস একটি
মোবাইল সেট যাহার সীম নং-০১৭০১৩২৪৮৫০ মূল্য অনুমান ৩৫,০০০/ টাকা নিয়া যায়। ঐ সময়ে আমার
ভাই পাপন দাস সহ আমার ০৪ বোনের ডাক-চিৎকারে আশেপাশের লোকজন আগাইয়া আসিতে দেখিয়া
বিবাদীরা আমার ভাই-বোনদেরকে এই বিষয় নিয়া বাড়াবাড়ি করিলে বা আইনের আশ্রয় নিলে পরবর্তীতে
আমার ভাই-বোনদেরকে খুন করিয়া ফেলিবে মর্মে হুমকী প্রদান করে চলে যায়। পরে আমি আমার পরিবারের
অন্যান্যরা সংবাদ পাইয়া ঘটনাস্থলে গিয়া আমার ভাই পাপন দাসকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করিয়া লোকজনের
সহায়তায় নরসিংদী সদর হাসপাতালে নিয়া চিকিৎসার ব্যবস্থা করিয়া বিষয়টি এলাকার গন্যমান্য লোকজনদের
জানাইয়া নিরুপায় হয়ে থানায় আসিয়া অভিযোগ দায়ের করিতে বিলম্ব হইল ।
অতএব, বর্ণিত বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করিতে মর্জি হয । আজ ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষে স্বাধীন দাসের বড় বোন শ্রাবন্তী নরসিংদী সদর প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে পরিবারের পক্ষে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন মামলা করে আমাদের জীবনের নিরাপত্তা নেই আসামিরা আমাদেরকে হুমকি দিচ্ছে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য । আমরা সংখ্যালঘু পরিবার তাদের ভয়ে আমরা আতঙ্কিত আছি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ এবং বিভিন্ন গোয়েন্দা দপ্তরের লোকজন। আরো উপস্থিত ছিলেন স্বাধীন দাস, শ্রাবন্তী দাশ,পাপন দাশ প্রমুখ ।

Daily Frontier News