Daily Frontier News
Daily Frontier News

খুলনার ডুমুরিয়ায় অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি লম্পট আব্দুর রহিম গ্রেপ্তার।

 

 

মোঃ আক্তারুজ্জামান লিটন // খুলনা ব্যুরো।।

 

খুলনার ডুমুরিয়ার নরনিয়া ধর্ষককে ছিনিয়ে নিতে হামলা ও ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি আব্দুর রহিম(২০) কে গ্রেপ্তার করেছে ডুমুরিয়া থানা পুলিশ।

সোমবার (২৭ মার্চ) আসমিকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠনো হয়েছে।

গত শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে ডুমুরিয়া উপজেলার আটলিয়া ইউনিয়নের নরনিয়া গ্রামে এক স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়।
স্থানীয় সুত্র ও ভুক্তভোগী পরিবার সুত্রে জানা গেছে, ডুমুরিয়া উপজেলার আটলিয়া ইউনিয়নের নরনিয়া (কাটাখাল) গ্রামের সাইফুল ইসলাম বিশ্বাসের (১৪) বছর বয়সী কন্যা ৮ম শ্রেনির ছাত্রী। সে প্রতিদিনের ন্যায় রাতের খাবার খেয়ে মায়ের সাথে ঘুমিয়ে ছিলো। কিন্তু একই মহাল্লার রাশিদুল বিশ্বাসের ছেলে লম্পট আব্দুর রহিম ভিকটিমদের বাড়ির আশপাশে উৎপেতে অবস্থান করছিল । প্রাকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাহিরে যাওয়া মাত্র মেয়েটি মুখ চেপে ধরে বাড়ির পাশে একটি পরিতাক্ত ক্ষেতের বাসায় নিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করতে থাকে রহিম। এক পর্যায়ে ভিকটিমের মা টের পেয়ে বাবা কাকাসহ মহাল্লার লোকজন ঘটনা স্থালে গিয়ে ধর্ষককে আটক করে। আর গুরুতর ও রক্তাক্ত অবস্থায় ভিকটিম উদ্ধার করে।
এদিকে ধর্ষককে ছাড়িয়ে নিতে ওই রাতে ভিকটিম পরিবারের উপর হামলা চালিয়ে এলোপাতাড়ি মারপিট করেছে ধর্ষকের পরিবার। ধর্ষকের পিতা রাশিদুলের বিশ্বাসের নেতৃত্বে ৮/১০ জনের একটি সংঘবদ্ধ দল তাদের হাতে থাকা ধারালো দাঁ লোহার রড লাঠি সোঠা দিয়ে এলোপাতাড়ি মারপিট করে ভিকটিমের বাবা সাইফুল ইসলাম (৪৫)কাকা খায়রুল ইসলাম (৪০), কামরুল ইসলাম (৩৫) ও মাতাসহ অন্তত ৫/৬ জন গুরতর আহত হয়েছে।
এঘটনায় ভিকটিম পরিবার থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। তদন্ত কর্মকর্তা এসআই শাহ-আলম জানান, মামলায় প্রধান অসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্যান্য আসামি গ্রেফতারে অভিযান অব্যহত রয়েছে।

Daily Frontier News